একটা সময় তোরে আমার সবি ভাবিতাম ,
তোরে মন পিঞ্জরে যতন করে আগলাইয়া রাখতাম।
তোর হাসি মুখের ছবি দেইখা দুঃখ পুষাইতাম ,
তুই কানলে পরে কেমন করে হারাইয়া যাইতাম। (২ বার )

ওরে মনের খাঁচায় যতন কইরা দিলাম তোরে ঠাঁই ,
এখন তোর মনেতেই আমার জন্য কোনো জায়গা নাই।
ওরে আদর কইরা পিঞ্জরাতে পুষলাম পাখিরে ,
তুই যারে যা উইড়া যারে অন্য খাঁচাতে।




ও মাইয়ারে , মাইয়ারে তুই, অপরাধী রে ,
আমার যত্নে গড়া ভালোবাসা দে ফিরাইয়া দে।
আমার অনুভূতির সাথে খেলার অধিকার দিলো কে ?
মাইয়া তুই বড় অপরাধী , তোর ক্ষমা নাই রে।

তোরে স্কুল পলাইয়া একটা নজর দেখিতে যাইতাম ,
আমি টিফিনের সব টাকা জমায় আবেগ কিনিতাম।
হাই রে ! রাইতের পর রাইত জাইগা গান লিখিতাম ,
আমার সেই গানেরও সুরে তোরে খুঁজিয়া লইতাম। (২ বার )

এখন একলা একা সময়গুলো কাটাই কেমনে ?
এতো ভালোবাসার পরেও আমার কম কি ছিলো রে ?
রোজ রাইতে আমায় জোনাক পোকা কানে কানে কয়,
তুই দেইখা লরে ত্রিভুবনে কেউ তো কারো নয়।

ও মাইয়ারে,মাইয়ারে তুই,অপরাধী রে ,
আমার যত্নে গড়া ভালোবাসা দে ফিরাইয়া দে।
আমার অনুভূতির সাথে খেলার অধিকার দিলো কে?
মাইয়া তুই বড় অপরাধী,তোর ক্ষমা নাই রে।

তোর নামের পাশে সবুজ বাতি আর তো জ্বলে না ,
এখন রাত্রি জুইড়া কেউ তো আর মায়া লাগায় না।
কারো হাসি মুখের ছবি দেইখা ঘুম আর ভাঙে না,
কেউ আর ফ্লেক্সিলোডের দোকানটাতেও ভীড় জমায় না। (২ বার )

এখন তাঁরার মতো জ্বলে নেভে কষ্ট গুলা রে ,
আমি গীটার সুর সাথে লইয়া ভালোই আছি রে।
রোজ রাইতে আমায় জোনাক পোকা কানে কানে কয়,
তুই দেইখা লরে ত্রিভুবনে কেউ তো কারো নয়।

ও মাইয়ারে , মাইয়ারে তুই, অপরাধী রে ,
আমার যত্নে গড়া ভালোবাসা দে ফিরাইয়া দে।
আমার অনুভূতির সাথে খেলার অধিকার দিলো কে ?
মাইয়া তুই বড় অপরাধী , তোর ক্ষমা নাই রে। (২ বার )



Post a Comment

Previous Post Next Post